সুষমা স্বরাজ কেন সহায়ক সরকারের কথা বলতে যাবেন

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ কেন সহায়ক সরকারের কথা বলতে যাবেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই তো যে সরকার ক্ষমতায় থাকে সেই সরকারের অধীনেই নির্বাচন হয়। সুষমা স্বরাজ বিএনপির কাছে সহায়ক সরকারের কথা বলেননি। তিনি কেনইবা এটা বলতে যাবেন।

সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে এমন কোনো আশা তিনি ব্যক্ত করেননি। যতোটুকু শুনেছি এ বিষয়ে তিনি বলেছেন, আমাদের দেশে ও অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশে নির্বাচন তো এভাবেই হয়।

ওবায়দুল কাদের সোমবার(২৩ অক্টোবর) বিকেলে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বলেন, যে কারণে বিএনপি নেতারা উচ্ছ্বসিত সেটা হলো সুষমা স্বরাজ একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রত্যাশা করেছেন। এ কারণে তো আমরাও উচ্ছ্বসিত। কারণ আমরাও সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। বিএনপি নেতারা বলছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ২৫ সিট পাবে। এটা তারা কীভাবে জানেন? সিট দেওয়ার মালিক জনগণ। আর সে ভাগ্য নির্ধারণের মালিক আল্লাহ। জনগণ ক্ষমতায় না আনলে কেউ ক্ষমতায় আসবে এটা আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করে না।

গণতন্ত্রের স্বার্থে আমরা চাই সব দল নির্বাচনে আসুক।

নির্বাচনে সেনা মোতায়ন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন কি কোনো নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে নির্বাহী ক্ষমতা দিয়েছিল? নিজে যা চর্চা করে না সেটা অন্যকে কেন বলবে। আমরা সেনা মোতায়েনের বিরুদ্ধে নই। আমাদের বক্তব্য হলো, সেনা মোতায়েন প্রয়োজনে হবে নির্বাচন কমিশন আইন অনুযায়ী।

আওয়ামী লীগের বর্তমান কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহি সংসদের এক বছরে দলে শৃঙ্খলা সম্পর্কিত সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, অভিযোগ থাকায় রুলিং পার্টির এমপি কারাগারে এমন নজির আছে অন্য কোনো দলের ইতিহাসে? অপরাধ করার কারণে (বিশ্বজিৎ হত্যা) রুলিং পার্টির কর্মীর ফাঁসি হয়েছে এটার নজির আছে কোথাও? যেখানেই শৃঙ্খলাভঙ্গ সেখানেই ব্যবস্থা নিয়েছে আওয়ামী লীগ। আমাদের অভিযাত্রা শেষ হয়নি। এই কমিটির মেয়াদ আরো দুই বছর আছে। আগামী নির্বাচনে জনগণের

SHARE

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here