শুক্রবার রাশিয়া বিশ্বকাপের ড্র। জেনে নিন খুঁটিনাটি …

রাশিয়া ২০১৮ বিশ্বকাপ মাঠে গড়াতে এখনও ছয় মাস বাকি। কিন্তু বিশ্বকাপে এর মধ্যে মধ্যে কাঁপতে শুরু করেছে গোটা ফুটবলবিশ্ব! বাছাইপর্বের দৌড় শেষে এখন চূড়ান্ত পর্বে কে কার মুখোমুখি হবে, এনিয়ে চলছে জোর জল্পনা-কল্পনা।
ঝড় উঠছে চায়ের কাপে। রাশিয়া বিশ্বকাপে কয়টি ‘গ্রুপ অব ডেথ’ থাকতে পারে, আপাতত সেই প্রশ্নের উত্তর জানতেই উৎকণ্ঠার অপেক্ষায় ফুটবল রোমান্টিকরা।
১ ডিসেম্বর মস্কোয় অনুষ্ঠিত হবে ২০১৮ বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বের ড্র। ৩২ দল নিয়ে ড্র পদ্ধতিতে গঠিত হবে আটটি গ্রুপ। শুক্রবারের সেই মহাযজ্ঞের আগে ড্র অনুষ্ঠানের খুঁটিনাটি জেনে নেয়া যাক।
কখন শুরু ড্র অনুষ্ঠান : ১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় শুরু হবে মূল ড্র অনুষ্ঠান।
কোথায় অনুষ্ঠান : মস্কোর ক্রেমলিন প্যালেসের কনসার্ট হলে অনুষ্ঠিত হবে ড্র অনুষ্ঠান।
ঐতিহাসিক এই হলের অতিথি ধারণক্ষমতা ছয় হাজার।
কারা দেখাবে : বাংলাদেশে ড্র অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল সনি টেন-১ ও সনি টেন-২। এছাড়া ফিফার ওয়েবসাইটে প্রতি মিনিটে অনুষ্ঠানের বিস্তারিত সব তথ্য জানানো হবে।
ড্র পরিচালনা করবেন কারা : ড্র অনুষ্ঠানে মূল সঞ্চালকের দায়িত্বে থাকবেন ১৯৮৬ বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতা সাবেক ইংল্যান্ড ফরোয়ার্ড গ্যারি লিনেকার এবং রাশিয়ার নারী ক্রীড়া সাংবাদিক মারিয়া কোমানদিনায়া। তাদের সহায়তা করবেন আট কিংবদন্তি আর্জেন্টিনার দিয়েগো ম্যারাডোনা, ব্রাজিলের কাফু, ফ্রান্সের লঁরা ব্লাঁ, ইংল্যান্ডের গর্ডন ব্যাংকস, ইতালির ফ্যাবিও ক্যানাভারো, উরুগুয়ের ডিয়েগো ফোরলান, স্পেনের কার্লোস পুওল এবং রাশিয়ার নিকিতা সিমোনিয়ান। গ্রুপ গঠনের জন্য বিভিন্ন পট থেকে দলের নাম তুলবেন তারা। এছাড়া বিশ্বকাপ ট্রুফি মঞ্চে নিয়ে আসবেন ২০১৪ বিশ্বকাপজয়ী সাবেক জার্মান ফরোয়ার্ড মিরোস্লাভ ক্লোসে।
ড্রর পদ্ধতি : ড্রর আগে গত অক্টোবরের ফিফা র‌্যাংকিং অনুযায়ী ৩২টি দলকে চারটি আলাদা পটে রাখা হবে। ফিফার নিয়ম অনুযায়ী বিশ্বকাপের স্বাগতিক দল এবং র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ সাত দল থাকবে এক নম্বর পটে। এই আটটি দল পড়বে ভিন্ন আট গ্রুপে। র‌্যাংকিংয়ের পরবর্তী আট দল থাকবে দ্বিতীয় পটে। এভাবেই বাকি দুই পটে থাকবে অন্য ১৬টি দল।
গ্রুপ গঠনের নিয়ম : চার পট থেকে একটি করে দল নিয়ে গঠিত হবে প্রতিটি গ্রুপ। একই অঞ্চল থেকে দুটি দলকে একই গ্রুপে রাখা যাবে না। তবে এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম ইউরোপের দেশগুলো। বিশ্বকাপের ৩২ দলের ১৪টিই ইউরোপের। ফলে একটি গ্রুপে সর্বোচ্চ দুটি ইউরোপের দল থাকতে পারবে। তথ্য সূত্র : ফিফা ডটকম
অংশগ্রহণকারী দলগুলো :
রাশিয়া, স্পেন, ডেনমার্ক, সার্বিয়া,
জার্মানি, পেরু, আইসল্যান্ড,নাইজেরিয়া,
ব্রাজিল, সুইজারল্যান্ড, কোস্টারিকা, অস্ট্রেলিয়া,পর্তুগাল, ইংল্যান্ড, সুইডেন, জাপান,
আর্জেন্টিনা, কলম্বিয়া, তিউনিসিয়া, মরক্কো,
বেলজিয়াম, মেক্সিকো, মিসর, পানামা,
পোল্যান্ড, উরুগুয়ে, সেনেগাল, দ. কোরিয়া,
ফ্রান্স, ক্রোয়েশিয়া, ইরান, সৌদি আরব।
SHARE

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here