রূপদিয়ায় চলন্ত ইজিবাইকে বখাটে কর্তৃক কলেজছাত্রীর শ্লীলতাহানি

সদর উপজেলার রূপদিয়া এলাকায় বৃহস্পতিবার সকালে চলন্ত ইজিবাইকের ভেতর একজন কলেজছাত্রীর শ্লীলতাহানি ঘটিয়েছেন এক বখাটে। তবে কলেজছাত্রীর চিৎকার চেঁচামেচিতে ইমরান হোসেন (২৮) নামে ওই বখাটে পালিয়ে গেছেন। এ ঘটনার পর ইজিবাইকচালকও পালিয়ে গেছেন। পরে ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে কোতয়ালী মডেল থানায় অভিযোগ করা হলেও বখাটে ইমরান হোসেনকে পুলিশ আটক করতে পারেনি। এদিকে চলন্ত ইজিবাইকের ভেতর কলেজছাত্রীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় রূপদিয়া এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। অভিযুক্ত বখাটের দাবি করেছেন অনেকে।
অভিযোগে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল নয়টার দিকে ওই ছাত্রী সদর উপজেলার চাউলিয়া গ্রামের মনু বিশ্বাসের ছেলে সাইফুল ইসলামের ইজিবাইকে করে রূপদিয়ায় কলেজে যাচ্ছিলেন। পথে চাউলিয়া গ্রামের স্বর্ণকার বাড়ির সামনে পৌঁছালে ওই ইজিবাইকের ওঠেন ইমরান হোসেন। তিনি চাউলিয়া গ্রামের ইমান আলীর ছেলে। এ সময় সুযোগ বুঝে ইমরান হোসেন চলন্ত ইজিবাইকের ভেতর কলেজছাত্রীর শ্লীলতাহানি ঘটান। ফলে কলেজছাত্রী চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করেন। তার চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন ছুটে গেলে ইমরান হোসেন ও সাইফুল ইসলাম ছাত্রীকে নামিয়ে দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যান। এ ঘটনার পর ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ করা হয়েছে। তবে বখাটে ইমরান হোসেন এখনো আটক হয়নি।

SHARE

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here