মাছ খেলেও হতে পারে শরীরের ক্ষতি!

চিকিৎসকের নিষেধের কারণে মাংস খেতে পারেন না অনেকেই। রেড মিট মানেই শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর, এ কথা আমরা সবাই জানি। শুধু চিকিৎসক নয়, আত্মীয়স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশি, অফিসের সহকর্মীদের কাছে প্রায়শই এ নিয়ে নানা জ্ঞান শুনতে হয়। আমিষপ্রেমীরা এতদিন ভাবতেন, মাংস খেতে না পারলেও নির্ভর করা যায় মাছের ওপরে। কিন্তু মাছেও নাকি রয়েছে দুশ্চিন্তার কারণ। অন্তত বেশ কিছু চিকিৎসকেরা এ বিষয়ে একমত। তারা জানাচ্ছেন, রেড মিটের মতোই নাকি ক্ষতিকর মাছও।

মাছ বিক্রেতা বলছেন মাছ খান, কিন্তু চিকিত্সকেরা যদি বলেন, মাছে বিপদ তাহলে মানুষ খাবে কী? সম্প্রতি প্রকাশিত একটি মেডিক্যাল জার্নালের রিপোর্ট অনুযায়ী, সামুদ্রিক মাছ-সহ বিভিন্ন স্বাদুপানির মাছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। এই ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড বেশি খেলে স্বাস্থ্যের ক্ষতি হতে পারে।

মার্কিন গবেষক নরম্যান হর্ড জানান, অতিরিক্ত মাছ খেলে শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থায় পরিবর্তন ঘটে যেতে পারে। এর ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গিয়ে উল্টে শরীর ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়ায় আক্রান্ত হতে পারে, হতে পারে রোগের সংক্রমণ।

নরম্যান আরও বলেন, অতিরিক্ত ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিডের কারণে রোগ প্রতিরোধব্যবস্থা পাল্টে যায়, যা জীবাণুর সঙ্গে শরীরের লড়াই করার ক্ষমতার ওপরও বিরূপ প্রভাব ফেলে। তবে পরিমিত পরিমাণে মাছ খাওয়ায় ভয়ের কোনো কারণ নেই। তাঁর মতে, কোনো ব্যক্তি দিনে ১৫০-২৫০ গ্রাম মাছ খেতেই পারেন। কিন্তু মাত্রাতিরিক্ত মাছ খাওয়া বিপদ ডেকে আনতে পারে।

SHARE

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here