বাণিজ্যমেলায় দর্শক প্রবেশ দুপুর ২টায়

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাসব্যাপী ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার (ডিআইটিএফ) উদ্বোধন করেছেন। তবে সর্বসাধারণের জন্য মেলা প্রাঙ্গণ উন্মুক্ত করা হবে দুপুর ২টায়।

এর পর পদ্মা সেতুর স্প্যানের (ইস্পাতের কাঠামো) আদলে তৈরি করা প্রধান গেট পেরিয়ে মেলা প্রাঙ্গণে যেতে পারবেন দর্শনার্থীরা।

এবার বাণিজ্যমেলার আয়োজন ও সৌন্দর্যবর্ধনে বিশেষ চমক আনা হয়েছে। তাই মূল ফটক পেরিয়ে সামনেই দেখা যাবে ডিজিটাল স্ক্রিন। ওই স্ক্রিন থেকে এক পলকেই দেখে নেয়া যাবে পুরো মেলা। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালসহ বিভিন্ন ঐতিহাসিক ও মুক্তিযুদ্ধের নানা ঘটনাও দৃশ্যায়িত হয়েছে মেলায়।

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলায় প্রতি বছরের মতো এবারও থাকছে দেশের স্বনামধন্য শিল্প গ্রুপ যমুনার ইলেকট্রনিক্স পণ্য। ক্রেতা-দর্শক আকৃষ্ট করতে ব্যতিক্রমী ও দৃষ্টিনন্দন প্যাভিলিয়ন নির্মাণ করেছে যমুনা ইলেকট্রনিক্স। মেলার জেনারেল প্যাভিলিয়ন ১৪-তে বসছে দৃষ্টিনন্দন যমুনার স্টল। মেলায় যমুনার যে কোনো পণ্য কিনলেই মিলবে নিশ্চিত পুরস্কার।

মেলায় যমুনা ছাড়াও বিভিন্ন দেশি-বিদেশি বড় বড় প্রতিষ্ঠান নিজেদের পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রির জন্য দৃষ্টিনন্দন প্যাভিলিয়ন নির্মাণ করেছে। ছোট ছোট স্টলগুলোও তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী সাজিয়ে তুলছে। তবে বেশিরভাগ ছোট প্রতিষ্ঠানের স্টলের কাজ এখনও পুরোপুরি শেষ হয়নি।

এ ছাড়া মেলায় গতবারের মতো ইকোপার্ক, শিশুপার্ক, মসজিদ, প্রতিবন্ধীদের জন্য অটিজম সেন্টার, মাদার কেয়ার সেন্টার, স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র, বিভিন্ন ব্যাংকের বুথ, বিদেশি বিভিন্ন স্টল, ভোক্তাদের স্বার্থ সংরক্ষণ ও অভিযোগ নিষ্পত্তির জন্য জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের কর্মকর্তা এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত রাখা হয়েছে।

মেলায় ভারত, পাকিস্তান, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া, জার্মানি, নেপাল, জাপান, আরব আমিরাতসহ কয়েকটি দেশের ব্যবসায়ীরা অংশ নিচ্ছেন।

এবারের মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। প্রাপ্তবয়স্কের জন্য প্রবেশ মূল্য ৩০ টাকা এবং অপ্রাপ্তবয়স্কের জন্য ২০ টাকা করা হয়েছে।

SHARE

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here