পায়খানা-প্রস্রাবের সময় যা করা নিষেধ

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উম্মতের প্রতিটি কাজের আদব, নিয়ম-কানুন, শিষ্টাচারসহ যাবতীয় শিক্ষা দিয়েছেন। যাতে রয়েছে মানুষের বহুবিধ কল্যাণ ও উপকারিতা।

পায়খানা-পেশাবের সময় মানুষের দৈহিক পবিত্রতা লাভ এবং ক্ষতি থেকে বেঁচে থাকতেও প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম শিষ্টচার শিক্ষা দিয়েছেন।

পায়খানা-প্রস্রাবে গোপনীয়তা রক্ষা করা
হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন মলত্যাগ করার প্রয়োজন মনে করতেন, তখন তিনি মাটির কাছাকাছি না হওয়া পর্যন্ত বস্ত্র তুলতেন না।’ (তিরমিজি, আবু দাউদ)

ডান হাতে ইসতেঞ্জা করা নিষেধ
‘রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যে কোনো ব্যক্তিকে ডান হাত দ্বারা নিজের লজ্জাস্থান স্পর্শ করতে নিষেধ করেছেন।’ (বুখারি, মুসলিম, তিরমিজি, ইবনে মাজাহ)

হজরত আবদুর রহমান ইবনে ইয়াজিদ রাহমাতুল্লাহি আলাইহি থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, সালমান রাদিয়াল্লাহু আনহুকে বলা হল, আপনাদের নবি প্রতিটি বিষয়ে আপনাদেরকে শিক্ষা দিয়েছেন; এমনকি পায়খানা-পেশাবের শিষ্টাচারও। সালমান রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, ‘হ্যাঁ’, তিনি আমাদের-
-কিবলামুখী হয়ে পায়খানা-পেশাব করতে;
– ডান হাত দ্বারা ইসতিনজা করতে;
– ৩টি ঢিলার কম দ্বারা ইসতিনজা করতে এবং
– শুকনো গোবর অথবা হাড় দ্বারা ইসতিনজা করতে নিষেধ করেছেন।’ (বুখারি, মুসলিম, তিরমিজি, ইবনে মাজাহ)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে পায়খানা-পেশাবের উল্লেখিত শিষ্টাচারগুলো যথাযথ মেনে চলার তাওফিক দান করুন। কুরআন-সুন্নাহ মোতাবেক পবিত্রতা অর্জন করে ইবাদত-বন্দেগি করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here