নতুন বছরে ক্রিকেটারদের প্রত্যাশা

২০১৭ সাল ক্রিকেট দলের কেটেছে ভালো মন্দের মিশেলে। নতুন বছরের শুরুতে ভালো কিছু করার স্বপ্ন দেখছেন ক্রিকেটাররা। ২০১৮ সালে ক্রিকেটাররা তাদের লক্ষ্যের কথা জানালেন-

খালেদ মাহমুদ সুজন : নতুন বছরে অনেক খেলা তাই পুলটা (প্রাথমিক দল) বড় করেছি। বছরে আমাদের এতো বেশি খেলার অভ্যাস নেই। ইনজুরিতে পড়তে পারে কেউ কেউ। পারফরম্যান্স নিচে নামতে পারে। পুলটা বড় হলে রিপ্লেস করতে সুবিধা হবে। নতুন বছরের শুরুতে যে সুযোগটা (াটম ডিরেক্টর) পেয়েছি সেটা আমার কাছে চ্যালেঞ্জ। আমি চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। আশা করি ভালো একটি বছর কাটবে আমাদের।

সাকিব আল হাসান : নতুন বছর থেকেই নতুন দায়িত্ব শুরু হবে। আমি যেখানেই থাকি না কেন আমার কাজটা ঠিক মতো করার চেষ্টা করি। সামনেও সেই চেষ্টা থাকবে।

তামিম ইকবাল : গত বছরেও সফলতা ছিল কিন্তু আরও একটু ভালো হতে পারতো। শ্রীলংকায় সিরিজ ড্র করেছি, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ও ত্রিদেশীয় সিরিজে (আয়ারল্যান্ডে) নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছি। নতুন বছরে আমরা গত বছরের চেয়ে ভালো ক্রিকেট খেলার প্রত্যাশা থাকবে।

২০১৭ সালটা আমার জন্য ভালো ছিলো। বিশেষ করে ওয়ানডেতে। চেষ্টা থাকবে এই পারফরম্যান্সটা আরো দীর্ঘ করার। সামনের সিরিজগুলোতেও একই মানসকিতা ও আত্মনিবেদন নিয়ে চেষ্টা করবো আরো ভালো করতে।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ : ২০১৭ সালটা ভালো মন্দের মিশেলে গেছে। বছরের শুরুতে আমরা দেশের মাটিতে সিরিজ দিয়ে শুরু করছি। সারা বিশ্বের সব দলই দেশের মাটিতে অনেক ভালো। আমরাও আমাদের কন্ডিশনে অনেক ভালো দল হয়ে উঠেছি। বছরের শুরুতে এটা আমাদের জন্য বাড়তি সুবিধা। তবে আমাদের ভালো ক্রিকেট খেলাটা জরুরি।
ব্যাক্তিগতভাবে আমি যখন যেভাবে সুযোগ পাবো ব্যাটিং, বোলিং বা ফিল্ডিং যাই হোক সবদিক থেকেই দলকে দেয়ার চেস্টা করবো।

নাসির হোসেন : ২০১৭ সালের শেষটা আমার জন্য ভালো হয়েছে। নতুন বছরে যে জায়গায় সুযোগ পাবো সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করবো। বাড়তি কোনো লক্ষ্য নেই।

মেহেদী হাসান মিরাজ : ২০১৭ সালে আমাদের অনেক ঘটনা ছিল যেগুলো ইতিবাচক। নতুন বছরে এগুলো অনুপ্রেরনা দেবে। ২০১৮ সালটা কেমন হবে এটা বলা কঠিন। দলগতভাবে সবার চেষ্টা থাকতে শতভাগ দিয়ে খেলার। আমিও চেষ্টা করবো ভালো করতে। বোলিং নিয়ে ফোকাসে আছি এটাতেই আরও ভালো করতে চাই। সুযোগ পেলে আস্তে আস্তে ব্যাটিংয়েও মনোযোগ দিব।

তাসকিন আহমেদ : শেষ দুটি সিরিজ আমাদের ভালো যায়নি। বিশেষ করে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজটা বোলারদের জন্য খুব খারাপ ছিল। আশা করি নতুন বছরের শুরুতেই আমরা সিরিজে ফিরে আসব। সবাই কঠিন পরিশ্রম করছে। নতুন বছরে আমি আমার শক্তির জায়গা ইন সুইং নিয়ে বেশি কাজ করতে চাই। আশা করছি ভালো কিছু করতে পারবো।

রুমানা আহমেদ : নতুন বছরে নিজেকে নতুন করে গঠন করার টার্গেট নারী দলের অধিনায়কের। যে কোনো কাজেই সফল হওয়ার তিব্র লক্ষ্য থাকবে। হয়তো ভালো খারাপের মধ্যে দিয়েই যেতে হয়। কিন্তু লক্ষ্য একটাই নিজের কাজ করবো এবং সফল হবো।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here