দোহারের কার্তিপুর বাজারের মাহিদ টেলিকমে দুর্দর্শ চুরি

ঢাকার দোহারের কার্তিপুর বাজারের মাহিদ টেলিকমে এক দুর্দর্শ চুরি হয়েছে। ৩ জুলাই বুধবার গভীর রাতে কার্তিকপুর বাজারের মাহীদ টেলিকম এন্ড ইলেক্ট্রিক হাউস দোকানে এ চুরির ঘটনা ঘটে।

দোকানের মালিক হান্নান মৃধা জানান,প্রতিদিনকার মত বুধবার রাত আনুমানিক ৯ টার পর দোকান বন্ধ করে বাসায় যাই। দুঃখজনক হলেও সত্যি যে পরেরদিন সকালে ৯টার দোকান খুলে দেখতে পাই ক্যাশবাক্স ভাঙ্গা মোবাইলের বাক্স এলোমেলো ছড়িয়ে ছিটিয়ে পরে আছে। টেবিলের উপর বসারটুলটি রাখা, সাথে, সাথে উপর দিকে তাকলে দেখতে পাই মলিবাশের ছিলিং ফাঁক দিয়ে টিনের চাল কেটে চোর ভিতরে প্রবেশ করে দোকানে চুরিঘটিত হয়। তার বিবরণে মাহিদ টেলিকম এন্ড ইলেক্ট্রিক হাউজ দোকান থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা, ৩০টি দামি মোবাইল ও ১৯০ টি নরমাল মোবাইল চুরি হয়েছে। নগদ টাকা সহ যার আনুমনিক মূল্য প্রায় পাঁচ লক্ষ টাকা। হান্নান মৃধার মাহীদ টেলিকম এন্ড ইলেক্ট্রিক হাউসের পাশের দোকানদার সুজন মিষ্টান্ন ভান্ডার, পিছনের দোকানদার চন্দন কর্মকার, সাথের দোকান রহমান বেপারী সহ বিভিন্ন দোকানদার ও ব্যবসায়ীরা কার্তিপুর বাজারের দুর্বল কমিটির দিকে আঙ্গুল তুলে অভিযোগ করেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় গত এক মাস আগে চন্দন কর্মকারের স্বর্ণের দোকানে চুরি সহ প্রতিমাসে একটি করে চুরির অভিযোগ এবং পাহারাওলাও রাত ১২ টার পর থাকেন না বলেও অভিযোগ পাওয়া যায়। দুর্বল বাজার কমিটির কারনেই এমনটি হচ্ছে বলে স্থানীয় দোকানদাররা জানান।যার কোন বিচার বা এর কোন ব্যবস্থা না করার কারনে এমন চুরিঘটিত হচ্ছে? এমন চলতে থাকলে আমাদের ছেলে সন্তান নিয়ে পথে বসতে হবে বলে আগামীর সময়কে অভিযোগ করে বলেন। তারা আরো বলেন প্রশাসন যদি দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন না করেন আমদেরমত আরো অনেকের আরো বড় ক্ষতি হতে পারে। এ ব্যাপারে দোকানের মালিক হান্নান মৃধা গত ৪ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে নিজে বাদী হয়ে দোহার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। দোহার থানার অফিসার্স ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম শেখ পিপিএম এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্দ করে দেখা হচ্ছে।
 সুত্রঃ আগামীর সময়

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here