জনশক্তি রফতানি বেড়েছে, কমেছে রেমিটেন্স

এক অর্থ বছরে জনশক্তি রফতানি ৩১ শতাংশ বাড়লেও রেমিটেন্স ১৪ দশমিক ৪৮ শতাংশ কমেছে। মন্ত্রিসভার ২০১৬-১৭ অর্থবছরের কার্যাবলী সম্পর্কিত বার্ষিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার (২৩ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

পরে সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের জানান, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৮ লাখ ৯৪ হাজার ৫৪ জন জনশক্তি রপ্তানি করা হয়েছে, যা ২০১৫-১৬ অর্থ বছর থেকে ৩০ দশমিক ৬১ শতাংশ বেশি।

তিনি জানান, জনশক্তি রফতানি বাড়লেও রেমিটেন্স কমেছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছর থেকে ২০০৬-১৭ অর্থবছরে ১৪ দশমিক ৪৮ শতাংশ রেমিটেন্স কমেছে।

রেমিটেন্স কমার কারণ প্রসঙ্গে প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘অনেক দিন ধরে কমছে। কমার বড় কারণ হচ্ছে সরকারি চ্যানেলে লোকজন কম টাকা দিতে চাচ্ছে, হয়ত এটা অন্য ফরমে চলে আসছে।’

প্রবাসীদের পাঠানো অর্থ বৈধ পথে আনতে সরকার সম্প্রতি পেপালের জুম সার্ভিস চালু করেছে, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে এতে হুন্ডি বা অবৈধ পথে আসা অর্থ বন্ধ হবে। দেশে ফ্রিল্যান্সারদের আয়ের টাকাও এ মাধ্যমে আনা যাবে, যা এতো দিন আসতো বিভিন্ন মাধ্যমে এবং যার হিসাব ছিলো না।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম জানান, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৩৪ দশমিক ৮৪৬৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রফতানি আয় হয়, যা তার আগের অর্থ বছরের থেকে এক দশমিক ৭২ শতাংশ বেশি।

২০১৬-১৭ অর্থবছরে ট্যাক্স আদায় হয়েছে এক লাখ ৮৬ হাজার ২৭৩ কোটি টাকা, আগের অর্থ বছর (২০১৫-১৬) থেকে সাত দশমিক সাত শতাংশ বেশি।

২০১৫-১৬ অর্থবছরে ১ হাজার ৪৬৫ মার্কিন ডলার মাথাপিছু আয় ছিল জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ৬০২ মার্কিন ডলার। প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৭ দশমিক ২৪ শতাংশ। ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে প্রবৃদ্ধি ছিল ৭ দশমিক ১১ শতাংশ।

২০১৬-১৭ অর্থবছরে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের আওতায় সমাপ্তিযোগ্য ৩৪১টি প্রকল্পের মধ্যে ৩১২টির কাজ শেষ হয়।

২০১৫-১৬ অর্থবছরের থেকে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বার্ষিক

SHARE

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here