কোরবানির হাটে পশুর স্বাস্থ্যের বিষয়ে ডিসিদের নজর রাখার নির্দেশ

কোরবানির হাটে পশুর স্বাস্থ্যের বিষয়ে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) নজর রাখার নির্দেশ দিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে ডিসি সম্মেলনের তৃতীয় দিন এ নির্দেশনা দিয়ে মন্ত্রী ডিসিদের উদ্দেশে বলেছেন, হাটে যে পশুগুলো আসবে সেগুলোর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে হবে। কোরবানির জন্য যাতে নিরাপদ ও সুন্দর স্বাস্থ্যের পশুগুলো যেতে পারে।

কোরবানির পশুর হাটে প্রভাব খাটিয়ে কেউ যাতে অস্থিরতা সৃষ্টি করতে না পারে- এ ব্যাপারেও ডিসিদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে জানিয়ে সাংবাদিকদের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, কোথাও কেউ যাতে (কোরবানির) মার্কেটের ওপর প্রভাবে ফেলতে না পারে, জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসকই মূলত এটা নিয়ন্ত্রণ করেন। আমাদের কর্মকর্তারাও থাকবেন, সহায়তা দিয়ে তাদের এটাকে নিয়ন্ত্রণে রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

কোরবানির জন্য দেশে পর্যাপ্তসংখ্যক পশু রয়েছে জানিয়ে প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, এবার প্রয়োজনের চেয়ে বেশি পশু আছে। ফলে এ নিয়ে দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই।

ক্ষতিকর ওষুধ ব্যবহার করে গরু মোটাতাজাকরণের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে তিনি বলেন, আগে স্টেরয়েড ব্যবহার করে গরু মোটাতাজা করা হতো। ওই মাংস মানুষের জন্য ক্ষতিকর। এবার এ বিষয়ে আমরা শতভাগ নিশ্চয়তা দিতে না পারলেও আমরা নিশ্চয়তা দিচ্ছি। এই দিক থেকে সন্দেহমুক্ত থাকতে পারেন।

বেশি লাভের আশায় মানুষের ক্ষতি না করতে খামার মালিকদের বোঝানো হচ্ছে জানিয়ে প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, তোমরাও ব্যবসা কর, মানুষকে ভালো খাবার দাও। এভাবে মানুষ কিন্তু ফিরে আসছে। ফরমালিনযুক্ত মাছ এখন একপ্রকার নেই, এটাও কিন্তু মোটিভেশন।

SHARE