আসন্ন বাজেট হবে তথ্যপ্রযুক্তি খাত বান্ধব: অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন, যে কোনো দেশের জন্যেই অনুসরণীয়। তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে বেসিস অনেকদিন ধরেই সরকারের সঙ্গে কাজ করছে। আসন্ন বাজেটে তথ্যপ্রযুক্তি খাত বান্ধব সিদ্ধান্তই নেয়া হবে।

সোমবার সচিবালয়ে বেসিসের কার্যনির্বাহী পরিষদের সঙ্গে বৈঠকে তিনি এসব কথা জানান।

বৈঠকে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটকে সামনে রেখে সফটওয়্যার ও আইটি সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিদ্যামান কর, মূসক, শুল্ক এবং আইটি কোম্পানিসমূহের জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে কর অব্যাহতি সনদ ইস্যুকরণ, ইইএফ অবিলম্বে চালুকরণসহ বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে।

পাশাপাশি স্থানীয় সফটওয়্যার ও আইটি প্রতিষ্ঠানসমূহ যাতে দেশের সকল ক্ষেত্রে স্থানীয়ভাবে তৈরি সফটওয়্যার ব্যবহার করে এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ এবং সচেতনতা সৃষ্টির ব্যাপারেও ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে।

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অভিভাবক সংস্থা হিসেবে ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকল্প বাস্তবায়নে সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বেসিস।

এসময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বেসিসের প্রস্তাবগুলোকে গুরুত্ব সহকারে বিবেচনার আশ্বাস দেন।

বৈঠকে উপস্থিত বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান বলেন, বেসিস তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে এবং স্থানীয় তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের অগ্রাধিকার যাতে আসন্ন বাজেটে প্রতিফলিত হয়, সেই যৌক্তিক দাবিগুলো তুলে ধরেছে। অর্থমন্ত্রী অত্যন্ত গুরুত্বসহকারে আমাদের প্রস্তাবগুলো শুনেছেন। আশা করি, আসন্ন বাজেটে আমরা এর প্রতিফলন দেখতে পাবো।

বৈঠকে বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমানের নেতৃত্বে অংশ নেন বেসিস সহ-সভাপতি (প্রশাসন) শোয়েব আহমেদ মাসুদ, সহ-সভাপতি (অর্থ) মুশফিকুর রহমান, পরিচালক মোস্তফা রফিকুল ইসলাম এবং পরিচালক দিদারুল আলম সানি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here